মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C
সর্ব-শেষ হাল-নাগাদ: ২৩rd জুলাই ২০১৯

২৬ জুন ২০১৯ চিটাগং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিডব্লিউসিসিআই) এ “বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) এর উদ্ভাবিত প্রযুক্তি পরিচিতি” বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত।


প্রকাশন তারিখ : 2019-06-26

 

২৬ জুন ২০১৯ চিটাগং উইম্যান চেম্বার অব কমার্স এন্ড ইন্ডাস্ট্রি (সিডব্লিউসিসিআই) এ “বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউট (বিএফআরআই) এর উদ্ভাবিত প্রযুক্তি পরিচিতি” বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত।

 

২৬ জুন ২০১৯ সিডব্লিউসিসিআই এর মিলনায়তনে বিএফআরআই এর উদ্ভাবিত প্রযুক্তি পরিচিতি বিষয়ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়। কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন বিএফআরআই এর পরিচালক ড. খুরশীদ আকতার। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সিডব্লিউসিসিআই এর প্রেসিডেন্ট জনাব মনোয়ারা হাকিম আলী এবং বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বিএফআরআই এর মুখ্য গবেষণা কর্মকর্তা ড. মো: মাসুদুর রহমান। বিএফআরআই এর বনজ সম্পদ উইং এর উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপন করেন ইনস্টিটিউটের মন্ড ও কাগজ বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা ড. ডেইজী বিশ্বাস এবং বন ব্যবস্থাপনা উইং এর উদ্ভাবিত প্রযুক্তিসমূহ পাওয়ার পয়েন্টে উপস্থাপন করেন ইনস্টিটিউটের সিলভিকালচার জেনেটিক্স বিভাগের বিভাগীয় কর্মকর্তা ড. মো: মাহবুবুর রহমান।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে জনাব মনোয়ারা হাকিম আলী, প্রেসিডেন্ট, সিডব্লিউসিসিআই বলেন, নতুন নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবনের মাধ্যমে বন গবেষণা ইনস্টিটিউট বাংলাদেশে বনজ সম্পদ উন্নয়নে অবদান রেখে চলেছে। বর্তমান সময় প্রযুক্তি নির্ভর কর্মকান্ড ছাড়া উন্নয়ন কোনভাবেই সম্ভব নয়।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে ড. মো: মাসুদুর রহমান, মুখ্য গবেষণা কর্মকর্তা, বিএফআরআই বলেন, দেশের বনজ সম্পদ উন্নয়নের জন্য বিএফআরআই নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে। এখন প্রয়োজন আমাদের উদ্ভাবিত প্রযুক্তির সঠিক ব্যবহার।
সভাপতির বক্তব্যে ড. খুরশীদ আকতার, পরিচালক, বিএফআরআই বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকেই বাংলাদেশ বন গবেষণা ইনস্টিটিউটের গবেষকেরা এ দেশের বনজ সম্পদ উন্নয়নে একাগ্রচিত্তে কাজ করে যাচ্ছে। আমাদের উদ্ভাবিত নতুন নতুন প্রযুক্তি এ দেশের বনায়নে ব্যবহৃত হচ্ছে, যা বনজ সম্পদকে সমৃদ্ধ করছে।
কর্মশালাটি সঞ্চালনা করেন বিএফআরআই এর পাবলিসিটি অফিসার জনাব এয়াকুব আলী।
দৈনিক আজাদী, পৃ. ২, ২৭ জুন ২০১৯


Share with :

Facebook Facebook